আজ বুধবার, ২৯শে জুন ২০২২ ইং, ১৫ই আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
top add

 অরুয়াইল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামীলীগ নেতার বিরুদ্ধে চাঁদা বাজির অভিযোগ। অপসারণ দাবি। 

30 May, 2020, 7:49 pm


নিজস্ব প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলার অরুয়াইল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে চাঁদা বাজির অভিযোগ করেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।
শনিবার বিকালে ১৬০ জনের স্বাক্ষরিত এক অভিযোগ পত্র জমা দেন সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে।
পরে তারা লিখিত অভিযোগপত্র জমা দিয়ে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে পথ সভা করেন। এসময় তারা উপরে উল্লেখিত অভিযোগ করেন এবং তার অপসারণের দাবী জানান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন অরুয়াইল ইউপি আওয়ামিলীগ নেতা কুতুব উদ্দিন ভুইয়া। বর্তমান  চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামিলীগ নেতা  মিজানুর রহমান। বাজার কমিটির যুগ্ম সম্পাদক বোরহান উদ্দিন। বণিক সমিতির সভাপতি খিরোদ চন্দ্র ঘোষ প্রমুখ। এছাড়াও অরুয়াইল বাজারের অনেক ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, অরুয়াইল বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী আবু তালেব মিয়া ক্ষমতার অপব্যবহার দেখিয়ে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা বাজি করে চলেছেন। তারা বলেন ২০/০৪/২০ তারিখ  করোনার প্রাদুর্ভাবের কথা বলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা চাদা আদায় করেছে। কিন্তু এই টাকা সে কোথায় খরচ করেছে কেউ তা জানে না।
তারা আরো বলেন, গত ২১/০৫/২০ তারিখে তার একক সিদ্ধান্তে  অরুয়াইল পুলিশ ফাড়ির সদস্যদের ঈদ বোনাসের নাম করে পঞ্চাশ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে।
এছাড়া করোনার প্রাদুর্ভাবে দোকান পাট খোলা রেখে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দোকানে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়। এই তালা খুলে দেয়ার নাম করে চাঁদা তুলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে। সে বিভিন্ন সময় প্রভাব খাটিয়ে ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে রাখে। তার কারণে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তারা।
তার এই অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে তারা শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ করেন।
এবিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে আবু তালেব মিয়া বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট। বোরহান উদ্দিন বাজার কমিটির সভাপতি হওয়ার জন্য আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। আমি ৭ বছর যাবৎ বাজার কমিটিতে আছি। নতুন কমিটি চাইলে নির্বাচন হবে। আর বোরহানের সাথে কথা বলেই পুলিশের জন্য ঈদ বোনাসের টাকা উঠানো হয়েছে। আর দোকান তালা দিয়েছে সরকার, আমি খুলে দিবো কিভাব? আর দলীয় পদ থেকে আমাকে উনারা অপসারন করাবেন কিভাব? এই বিষয়ে বুঝবে উপজেলা ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দরা।
সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এস এম মোসা বলেন, আবু তালেবের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আমাকে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য সহকারি কমিশনার( ভূমি) কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আবু তালেব কে বাজার থেকে কোন ধরনের টাকা উত্তোলন করতে নিষেধ করা হয়েছে।